হিমোগ্লোবিনের ঘাটতি কেন হয়, এক্ষেত্রে কী করবেন?

Print Friendly, PDF & Email

লাইফস্টাইল ডেস্ক : রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কমে যাওয়ার সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। ক্রমশ রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কমে গেলে শারীরিক বিভিন্ন জটিলতা দেখা দিতে পারে। তবে হিমোগ্লোবিন আসলে কী?

রক্তের মাধ্যমে পুরো দেহে অক্সিজেন ও বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান পরিবাহিত হয়। রক্তের তিনটি কণিকার মধ্যে লোহিত কণিকায় থাকে বিশেষ ধরনের আয়রন, যাকে বলা হয় হিমোগ্লোবিন। এর প্রধান কাজ হলো ধমনী থেকে দেহের সব স্থানে অক্সিজেন সরবরাহ করা।

হিমোগ্লোবিনের ঘাটতি কেন হয়?

হিমোগ্লোবিনের অভাব শরীরের একটি সাধারণ সমস্যা। শরীরের চাহিদা অনুযায়ী ভিটামিন ও খনিজের অভাব হলেই দেখা দেয় হিমোগ্লোবিন স্বল্পতা। ছোট-বড় সবার শরীরেই হিমোগ্লোবিনের ঘাটতি দেখা দিতে পারে।

এর লক্ষণ কী কী?

রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমে গেলে চুল পড়ার সমস্যা বেড়ে যায়। মূলত আয়রনের অভাবে এমনটি ঘটে। রক্তস্বল্পতার কারণে অনেক সময় অবসাদ গ্রাস করে। অনেকের আবার হৃদস্পন্দনের গতিও বেড়ে যায়।

অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় অনেক নারীই রক্তস্বল্পতার সমস্যায় ভোগেন। তবে পুষ্টির অভাবে যে কারও এই সমস্যা দেখা দিতে পারে। পুষ্টিবিদদের মতে, খাদ্যাভ্যাসে সামান্য বদল করলে এই রোগের সঙ্গে লড়াই করা সম্ভব।

রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে কী খেতে হবে?

শাক-সবজি

রক্তে আয়রনের ঘাটতি পূরণে রোজের খাদ্যতালিকায় পালং শাক, ব্রোকলি, বিটরুট, পনির, ডিম, আপেল, তরমুজ, বেদানা, কুমড়ার বীজ, কাঠবাদাম, অ্যাপ্রিকট ও কিশমিশ রাখতে পারেন।

ভিটামিন সি

ভিটামিন সি শরীরে আয়রন শুষে নিতে সাহায্য করে। এজন্য ভিটামিন সি আছে এমন খাবার ডায়েটে বেশি করে রাখতে হবে। কমলালেবু, স্ট্রবেরি, পেঁপে, ক্যাপসিকাম, আঙুর ও টমেটোতে প্রচুর ভিটামিন সি থাকে।

ফলিক অ্যাসিড

ফলিক অ্যাসিড এক ধরনের ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, যা রক্তে লোহিত কণিকা তৈরিতে সাহায্য করে। সবুজ শাক-সবজিতে প্রচুর মাত্রায় ফলিক অ্যাসিড থাকে। তাই বেশি শাক-সবজি ডায়েটে রাখুন।

সূত্র: লগইন টু হেলথ