জামিন পেলেন মেজর মান্নান

Print Friendly, PDF & Email
  • দুর্নীতি মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতি দমন কমিশনের করা মামলায় সাবেক সংসদ সদস্য ও বিকল্প ধারা বাংলাদেশের সাবেক মহাসচিব মেজর (অব.) আব্দুল মান্নান জামিন পেয়েছেন।

ঢাকার সিনিয়র বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেনের আদালতে গত রোববার (৩১ মার্চ) তার আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঐদিনই বিচারক তার জামিন মঞ্জুর করেন।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) দুদকের আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) ঢাকার সিনিয়র বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেনের আদালতে তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

২০ কোটি ২২ লাখ ৩ হাজার ৬৩০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স করপোরেশন লিমিটেডের (বিআইএফসি) সাবেক চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান এবং ঋণগ্রহীতা মো. রফিক উদ্দিনসহ মোট ১৫ জনের নামে ২০২৩ সালের ১২ এপ্রিল ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে সংস্থাটির উপ-পরিচালক মো. আব্দুল মাজেদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, মেজর (অব.) আব্দুল মান্নান এবং তার প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ও কর্মকর্তারা পরস্পর যোগসাজশে প্রতারণামূলকভাবে মো. রফিক উদ্দিনের নামে নিরাপত্তা জামানত ও মর্টগেজ ছাড়াই ১১ কোটি ৭০ লাখ টাকা ঋণ মঞ্জুর ও বিতরণ দেখিয়ে উক্ত টাকা পরিশোধ না করে গ্রাহকের নিকট পাওনা ১৪ কোটি ৩১ লাখ ১৯ হাজার ২৫ টাকা আত্মসাৎপূর্বক দণ্ডবিধির ৪০৬/৪০৯/৪২০/১০৯ ধারা এবং তৎসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অপরাধ করায় কমিশন তাদের বিরুদ্ধে মামলা রুজুর অনুমোদন দিয়েছে।

রফিক উদ্দিন বিআইএফসি’র কর্মকর্তা ও বোর্ড সদস্যদেরকে অন্যায়ভাবে প্রভাবিত করে পৃথক ৪টি ঋণ চুক্তির মাধ্যমে ১১ কোটি ৭০ লাখ টাকা ঋণ মঞ্জুর করিয়ে ১৪ কোটি ৩১ লাখ ১৯ হাজার ২৫ টাকা আত্মসাৎ করে দণ্ডবিধির ৪০৬/৪০৯/৪২০/১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অপরাধ করেছেন। সুদাসলে যার বর্তমান স্থিতি ২০ কোটি ২২ লাখ ৩ হাজার ৬৩০ টাকা।