৮ বছরে ৪ লাখ সিরীয় শিশুর জন্ম তুরস্কে

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : ২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ৪ লাখ ১৫ হাজার শিশু তুরস্কে জন্ম নিয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

বুধবার (১৯ জুন) তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় ভূমধ্যসাগরীয় সংসদীয় পরিষদের (পিএএম) এক সভায় মন্ত্রণালয়ের অভিবাসন ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান আব্দুল্লাহ আইয়াজ এ তথ্য জানান। আজ বৃহস্পতিবার দেশটির পার্লামেন্টে দ্বিতীয় দিনের সভা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, তুরস্কে আশ্রিত ৩.৬ মিলিয়নের মধ্যে ১ লাখ সিরিয়ান অভিবাসীর বয়স ৬০ বছরের উপরে। এর বাইরে বেশিরভাগই যুবক।

আব্দুল্লাহ আইয়াজ বলেন, প্রত্যেক সিরীয় শিশুর শিক্ষা নিশ্চিত করতে তুরস্কের কর্মকর্তারা কাজ করে যাচ্ছেন। ২০১১ সাল থেকে ৭৪ হাজারেরও বেশি বিদেশিকে তুরস্কে ঢুকতে দেয়া হয়নি বলে জানান তিনি।

ইউরোপে প্রবেশের জন্য অনিয়মিত অভিবাসীদের প্রধান রুট তুরস্ক। বিশেষ করে ২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরুর পর থেকে এ রুটে চাপ বেড়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সিরিয়ান শরণার্থী আশ্রয় দিয়েছে তুরস্ক।

তুরস্কের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সাল পর্যন্ত তুরস্কে ২ লাখ ৬৫ হাজারেরও বেশি অনিয়মিত অভিবাসী এসেছে।