পাকিস্তান সীমান্তে ৪৬০টি ট্যাঙ্ক মোতায়েন করছে ভারত

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : সাম্প্রতিক সময়ে কাশ্মীরে চলমান উত্তেজনার জেরে পাকিস্তান সীমান্তে রাশিয়ান প্রযুক্তিতে তৈরি ৪৬০টি ট্যাঙ্ক মোতায়েন করার ঘোষণা দিয়েছে ভারত। তবে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে ট্যাঙ্ক মোতায়েনের নির্দিষ্ট সময় নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।

গত ফেব্রুয়াতে কাশ্মীরে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পরে সেনাবাহিনীকে যেকোনো পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেয় ভারত। এবার সীমান্ত এলাকায় যেসব সেনা জওয়ান অভিযানে আছেন তাদেরকেও উচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে।

দক্ষিণ ভারতের তামিলনাডু প্রদেশের রাজধানী চেন্নাইয়ের আভাদি এলাকায় অবস্থিত ভারতের সমরাস্ত্র কারখানায় ‘মেড ইন ইণ্ডিয়া’ প্রকল্পে ‘ভীষ্ম’ নামে রুশ প্রযুক্তিতে এসব অত্যাধুনিক ট্যাঙ্ক তৈরি হচ্ছে ৷ গত মাসে এই ট্যাঙ্ক নির্মাণের ছাড়পত্র অনুমোদন দেয় ভারতের মন্ত্রিসভা।

সোমবার দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সেনাবাহিনীর কাছে এখন প্রায় ১ হাজার ৭০টি ট্যাঙ্ক রয়েছে৷ তাছাড়া আরও আছে ১২৪টি অর্জুন ও ২ হাজার ৪০০টি মডেলের টি-২৭ ট্যাঙ্ক৷ তবে এই ‘ভীষ্ম’ ট্যাঙ্কের প্রযুক্তি বাকিদের পেছনে ফেলবে বলেই মনে করা হচ্ছে৷

পাকিস্তানের আক্রমণ থেকে বাঁচতে বাঙ্কার তৈরি করা হচ্ছে বলেও এর আগে দেশটির গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়। ইতোমধ্যে কাশ্মীরের পুঞ্চ ও রাজৌরি জেলায় ৭ হাজার ২৯৮টি বাঙ্কার তৈরির কাজ শেষ হয়েছে৷ আরও ৭ হাজার ১৬২টি বাঙ্কার নির্মাণের কাজ চলছে।

সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, আন্তর্জাতিক সীমানা ও নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর সীমান্ত এলাকায় মোট ১৪ হাজার ৪৬০টি বাঙ্কার নির্মাণের কাজ চলছে। যা নির্মাণে খরচ হবে ৪১৫ দশমিক ৭৩ কোটি টাকা।

এসব বাঙ্কারের ১৩ হাজার ২৯টি ব্যক্তিগত এবং ১ হাজার ৪৩১টি গোষ্ঠীগত বাঙ্কার। ১৬০ স্কয়ার ফিটের ব্যক্তিগত বাঙ্কারগুলোতে ৮ জন মানুষ আশ্রয় নিতে পারবে৷ তাছাড়া ৮০০ স্কয়ার ফিটের দলীয় বাঙ্কারে ৪০ জনের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে।