ওএসডি হলেন কান্ট্রি ম্যানেজারসহ দুই কর্মকর্তা

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লন্ডন থেকে আসা কান্ট্রি ম্যানেজারসহ দুই কর্মকর্তাকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করেছে বিমান কর্তৃপক্ষ। গতকাল মঙ্গলবার বোর্ড মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ বুধবার (৩ এপ্রিল) এক দাফতরিক আদেশে তাদের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

লন্ডন থেকে আসা কান্ট্রি ম্যানেজার শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে আড়াই হাজার ফ্রি টিকিট বিক্রি করে ১৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া মার্কেটিং বিভাগের অপর কর্মকর্তা হচ্ছেন ভারপ্রাপ্ত পরিচালক আশরাফুল আলম। তার বিরুদ্ধে বিমান মনোনীত কিছু ট্রাভেল এজেন্সিকে সিট ব্লক করে বিশেষ সুবিধা দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

বুধবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে বিমানের প্রশাসন শাখা থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি হয়।

জানা গেছে, সদ্য লন্ডন থেকে বদলি হয়ে আসা শফিকুল ইসলামের চার বছরের মেয়াদে লোকাল স্টেশন থেকে ২ হাজার ৪৭২টি ফ্রি টিকিট ইস্যু করা হয়েছে। যাদের সবাই লন্ডন থেকে ঢাকা এসে আবার লন্ডনে ফেরত গেছেন। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাসের যাত্রী ছিলেন ১ হাজার ১৩৬ জন এবং ইকোনমি ক্লাসের যাত্রী ছিলেন ১ হাজার ৩৩৬ জন।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক এ বিষয়ে জাগো নিউজকে বলেন, ফ্রি টিকিটে বিজনেস ক্লাসের যাত্রী ১ হাজার ১৩৬ এবং ইকোনমি ক্লাসের যাত্রী ১ হাজার ৩৩৬ জন -এই অঙ্ক সঙ্গতিপূর্ণ হতে পারে না। আর সার্কুলার মতে যারা বিজনেস ক্লাসের যোগ্য তাদের নামে টিকিটগুলো ইস্যু করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে এমন প্রমাণ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বিষয়টি তদন্তের জন্য মন্ত্রণালয় থেকে কয়েকদিনের মধ্যে একটি দল লন্ডনে পাঠানো হবে। লন্ডন স্টেশনে সংশ্লিষ্ট দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি খাতে দুর্নীতি অভিযোগ এসেছে, সেগুলোও তদন্ত করা হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।