শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা : দু’জনের মৃত্যুদণ্ড

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : নাটোরে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী মায়া খাতুনকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে দুইজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুর একটার দিকে নাটোরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- নলডাঙ্গা উপজেলার ব্রহ্মপুর গ্রামের (পশ্চিম অংশের) টিপুর ছেলে মো. মোবারক হোসেন ওরফে কালু (২৪) ও একই উপজেলার কাশিয়াবাড়ি গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে মো. মিঠুন (২৫)

নাটোর জজ কোর্টের স্পোশাল পিপি অ্যাড. শাহজাহান কবির ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৭ জুলাই নলডাঙ্গা উপজেলার ব্রহ্মপুর গ্রামের জহুরুল ইসলামের মেয়ে এবং ব্রম্মপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী মায়া খাতুনকে দুর সম্পর্কের মামাত ভাই মোবারক হোসেন চকলেট খাওয়ানোর কথা বলে বারনই নদী সংলগ্ন আম বাগানে নিয়ে যায়।

এরপর সাজাপ্রাপ্ত দুজন মিলে মায়াকে ধর্ষণ এবং শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এ ব্যাপারে মায়ার বাবা জহুরুল ইসলাম বাদী হয়ে নলডাঙ্গা থানায় একটি মামলা করেন। তদন্ত শেষে নলডাঙ্গা থানার এসআই ওয়াজেদ দুজনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট প্রদানের পর স্বাক্ষ্য প্রমাণ গ্রহণ শেষে বিচারক আজ এই রায় ঘোষণা করেন।

Be the first to comment on "শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা : দু’জনের মৃত্যুদণ্ড"

Leave a comment

Your email address will not be published.




fourteen + 16 =