রুশ দূতাবাসের সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : নার্ভ এজেন্টে প্রয়োগের মাধ্যমে হত্যা চেষ্টার শিকার সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপালের মেয়ে ইউলিয়া স্ক্রিপাল এ মূহুর্তে রাশিয়ান দূতাবাসের সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন। ৩৩ বছর বয়সী ইউলিয়া সোমবারই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, তার বাবা এখনো মারাত্মক অসুস্থ।

পুলিশের মাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে ইউলিয়া বলেন, গণমাধ্যমকে পূর্ণাঙ্গ সাক্ষাতকার দেয়ার মতো শক্তি এখনো তিনি ফিরে পাননি।

তার অভিযোগ কেউ তার বা তার বাবার হয়ে কথা বলেনি। সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়ে ইউলিয়া স্ক্রিপালকে গত ৪ মার্চ একটি পার্কে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাদের উদ্ধারে যাওয়া একজন পুলিশ কর্মকর্তাও পরে গুরুতরভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

এরপরই ব্রিটেনের পুলিশ জানায় যে, স্ক্রিপাল এবং তার মেয়েকে হত্যার চেষ্টায় নার্ভ এজেন্ট বা স্নায়ুকে আঘাতকারী রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছে।

ব্রিটেনসহ পশ্চিমা বিশ্ব এ ঘটনার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করলেও রাশিয়া এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। এ ঘটনার জের ধরে পরে মস্কো ও পশ্চিমা বিশ্বের মধ্যে তীব্র কূটনৈতিক সংকট তৈরি হয়। ৬৬ বছর বয়সী ক্রিপাল এখনো সলিসবুরি হাসপাতালে রয়েছেন।

ইউলিয়া স্ক্রিপাল তার বিবৃতিতে আরও বলেন, এক মাসেই পাল্টে গেছে তার জীবন। তিনি বলেন, আমার একমাস আগের সাধারণ একটি জীবনের চেয়ে এটি সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি জীবন। স্ক্রিপালকে একটি নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে।

তিনি জানান, বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত কর্মকর্তারা রয়েছেন যারা আমার দেখভাল করছেন এবং কিভাবে তদন্তটি হচ্ছে সেটি জানাচ্ছেন।অবশ্য হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর তাকে টুইট বার্তায় অভিনন্দন জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের রাশিয়া দূতাবাস।

একই সাথে তারা বলছে, তাকে নিয়ে কি করা হচ্ছে বা তার ইচ্ছায় সেটি হচ্ছে কিনা তার প্রমাণ পাওয়া জরুরি। স্ক্রিপাল তার বিবৃতিতে বলেছেন, পরিবার এবং বন্ধুদের সাথে যোগাযোগের সুযোগ আমার আছে এবং রাশিয়ান দূতাবাসের যারা আমাকে সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছেন সে বিষয়ে আমাকে জানানো হয়েছে। কিন্তু এ মূহুর্তে তাদের কোন সহযোগিতা নিতে আমি ইচ্ছুক নই। পরে মত বদলালে আমি জানি কিভাবে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

সের্গেই স্ক্রিপাল ও ইউলিয়া স্ক্রিপাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার সময় রাশিয়ায় তার চাচাতো বোন ভিক্টোরিয়া স্ক্রিপাল বিবিসিসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন। সোমবার ইউলিয়া হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাবার পর ভিক্টোরিয়া বলেছেন ইউলিয়া স্ক্রিপাল রাজনৈতিক আশ্রয় নেবার পরিকল্পনা করছেন কিন্তু কোন দেশের সেটি তিনি জানেন না। তবে ইউলিয়া তার বিবৃতিতে বলছেন, ভিক্টোরিয়ার মতামত তার বা তার বাবার মতামত নয়।

Be the first to comment on "রুশ দূতাবাসের সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান"

Leave a comment

Your email address will not be published.




3 × two =