রাজশাহীতে পাসপোর্ট করতে এসে রোহিঙ্গা তরুণী আটক

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : পাসপোর্ট করতে এসে রাজশাহীতে শওকত আরা (১৯) নামে এক রোহিঙ্গা তরুণীকে আটক করা হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নগরীর শালবাগান বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস থেকে চন্দ্রিমা থানা পুলিশ তাকে আটক করে।

শওকত আরা চট্টগ্রামের বালুখালি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা ফরিদ উল্লাহর মেয়ে। বুধবার দুপুরে তাকে নগর পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে নেয়া হয়েছে।

ওই তরুণীকে সহায়তার অভিযোগে শাহীন ইসলাম খান ওরফে ফয়সাল (৩৫), মাসুম আলী (২৭) ও সুলতানা বেগমকে (২৫) গ্রেফতার করা হয়। তিনজনই নগরীর সপুরা এলাকার বাসিন্দা। তারা দীর্ঘদিন ধরে পাসপোর্ট অফিসে দালালি করে আসছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার দুপুরের পর তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

নগরীর চন্দ্রিমা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ূন কবির জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই তরুণী রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করেছে। পাসপোর্ট করতেই তিনি রাজশাহীতে এসেছেন। টের পেয়ে পাসপোর্ট অফিসের কর্মীরা তাকে ধরে পুলিশে দেন। এ সময় গ্রেফতার করা হয় সেখানকার তিন দালালকেও।

রাতেই ওই তিন দালালের নামে মামলা হয়েছে। ওই মামলায় বুধবার দুপুরের দিকে তিনজনকে আদালতের মাধ্যমে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

তিনি আরও বলেন, দুপুরে উদ্ধার ওই রোহিঙ্গা তরুণীকে পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে নেয়া হয়। তাকে বালুখালি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

Be the first to comment on "রাজশাহীতে পাসপোর্ট করতে এসে রোহিঙ্গা তরুণী আটক"

Leave a comment

Your email address will not be published.




four + eleven =