ঠাকুরগাঁওয়ের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ৭টি আশ্বাস

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় জনমানুষের উন্নয়নে সাতটি আশ্বাস দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি এরপরের নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে জয়ী করার জন্য ঠাকুরগাঁওয়ের মানুষকে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ববিদ্যালয়, স্পেশাল ইকনোমিক জোন স্থাপন, আন্তঃনগর ট্রেন চালু, আইটি পার্ক, ভুল্লী থানা, কর্মজীবী মহিলাদের হোস্টেলসহ সকল উপজেলায় একটি করে স্কুল-কলেজ সরকারি করে দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টায় জেলা আওয়ামী লীগের জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠাকুরগাঁওয়ে ৩৩টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৩৩টি প্রকল্প বাস্তবায়নের ভিত্তিপ্রস্তর ফলক উন্মোচন করেন সভাস্থলেই।

জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যতদূরেই থাকি আমি সব সময় আপনাদের সঙ্গেই ছিলাম, সঙ্গে আছি এবং সঙ্গে থাকবো। আমি আপনাদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। আপনাদের ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার জন্য স্কুল-কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছি। আমি ক্ষমতায় এসে মানুষের উন্নয়নের কথা চিন্তা করেছি। দেশের প্রধান হিসেবে নিজেকে সেবক মনে করি। আমার ওপর ১৬ কোটি মানুষের দায়িত্ব রয়েছে। আমি সেই দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করার চেষ্টা করছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের সরকার ক্ষমতায় এলেই দেশের উন্নয়ন হয়। আমরা উন্নয়ন করি আর বিএনপি লুটপাট করে। আমরা বিমানবন্দর চালু করি তারা বন্ধ করে। এভাবে একের পর এক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে বাধাগ্রস্ত করে দেশের উন্নয়ন ধ্বংস করেছে বিএনপি।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় এসে কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দিলো। মানুষ চিকিৎসা পায়, বিনা পয়সায় ওষুধ পায় সেটা তাদের পছন্দ নয়। আমি ২০০৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর সেগুলো পুনরায় চালু করি। আজকে নিরাপদ চিকিৎসা সেবাসহ সকল সুবিধা পাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

বিএনপির মহাসচিব ফখরুল ইসলাম দিনরাত মিথ্যা কথা বলতে বলতে গলা খারাপ করে ফেলেছে। সে ছিল বিমান প্রতিমন্ত্রী। অনেক বিমানবন্দর বন্ধ ও লুটপাট করে সব কিছু ধ্বংস করে ফেলেছিলেন তিনি। আমরা ক্ষমতায় এসে অনেক বিমান চালু করেছি। আগামীতে আরও বিমানকে উন্নত করবো।

“বিএনপি শুধু ধ্বংস করতে জানে, সৃষ্টি করতে জানে না। লুটপাট করে খেতে জানে মানুষকে দিতে জানে না।”

বিএনপির আমলে বাংলাদেশ বিশ্বে ৫ বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর দেশটাকে ধ্বংসের দায়প্রাপ্তে নিয়ে গেছে তারা। খালেদা জিয়া ও তার ছেলেরা অর্থ সম্পদ লুট করে বিদেশে পাচার করেছেন। আমরা সেই টাকা উদ্ধার করে জনগণের কাজে লাগাচ্ছি।

ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড়মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দবিরুল ইসলাম এমপির সভাপতিত্বে এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল হোসেন হানিফ এমপি, জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, যুব মহিলা লীগের সভাপতি অপু উকিল, ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক কুরাইশী প্রমুখ।

Be the first to comment on "ঠাকুরগাঁওয়ের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ৭টি আশ্বাস"

Leave a comment

Your email address will not be published.




19 + 15 =