ইরাকি আদালতে ১৬ তুর্কি নারীর ফাঁসি

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দেয়ার অভিযোগে ইরাকে ১৬ তুর্কি নারীকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে।

ইরাকে আইএসের দাপট কমে যাওয়ার পর সেখানে গ্রেফতার হাজারো বিদেশি নারীর বিচার চলছে। এই নারীদের সঙ্গে রয়েছে শত শত বাচ্চাও।

রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা যাবে বলে জানিয়েছেন বিচার বিভাগের এক মুখপাত্র।

২০১৪ সাল থেকে হাজারো বিদেশি নাগরিক ইরাকে আইএসের হয়ে যুদ্ধ করেছেন। অনেক নারীও দেশের বাইরে থেকে এসে বা তাদের আনা হয় এই জঙ্গিগোষ্ঠীতে যোগ দিতে।

গত বছরের আগস্টে কুর্দি বাহিনীর কাছে প্রায় ১৩০০ বিদেশি নারী আত্মসমর্পন করেন। পরে জঙ্গিদের মূলোৎপাটনে আরও বড় অভিযান শুরুর পর এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ১৭০০তে।

একই অভিযোগে গত সপ্তাহেও এক তুর্কি নারীকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। এ ছাড়া ১০ জন বিভিন্ন দেশের নারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়।

২০১৪ সালের পর ইরাকের প্রায় এক-তৃতীয়াংশের দখল নেয় আইএস। গেল বছরের ডিসেম্বরে আইএসেকে পরাজিত করার ঘোষণা দেয় ইরাক। তবে ইরাকে জঙ্গি হামলা এখনও থামেনি।

Be the first to comment on "ইরাকি আদালতে ১৬ তুর্কি নারীর ফাঁসি"

Leave a comment

Your email address will not be published.




five × 4 =