পিএসএলে অভিষেক ম্যাচেই চমক মোস্তাফিজের

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : পাকিস্তান সুপার লিগে অভিষেকে উজ্জ্বল মুস্তাফিজুর রহমান। লাহোর কালান্দার্সের হয়ে মুলতান সুলতানসের বিপক্ষে দারুণ বোলিং করেছেন বাঁহাতি এই পেসার।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুক্রবারের দ্বিতীয় ম্যাচে ৪ ওভারে ২২ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন মুস্তাফিজ। তার দারুণ বোলিংয়ের পরও ৫ উইকেটে ১৭৯ রানের বড় সংগ্রহ গড়ে মুলতান।

পঞ্চম ওভারে প্রথমবারের মতো মুস্তাফিজকে আক্রমণে আনেন অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। সেই ওভার থেকে মাত্র ৬ রান নিতে পারেন কুমার সাঙ্গাকারা ও আহমেদ শেহজাদ। উইকেটরক্ষক উমর আকমলের নিদারুণ ব্যর্থতায় প্রতিপক্ষে পেয়ে যায় একটি বাই চার।

১৩ ওভারে উদ্বোধনী জুটি তুলে ফেলে ৮৮ রান। বিপজ্জনক হয়ে উঠা জুটি ভাঙতে একাদশ ওভারে মুস্তাফিজকে আক্রমণে ফেরান ম্যাককালাম। প্রথম বলেই আঘাত হানেন বাঁহাতি পেসার। কট বিহাইন্ড করে ফিরিয়ে দেন শেহজাদকে।

সেই ওভারে পাঁচটি বল ছিল ডট। অন্য বলে ব্যাটের কানায় লেগে ফাইন লেগ দিয়ে চার পেয়ে যান শোয়েব মাকসুদ।

সাঙ্গাকারা ও শোয়েব মালিকের ব্যাটে স্রোতের মতো আসছিল রান। তাদের থামাতে ১৭তম ওভারে আবার মুস্তাফিজকে আক্রমণে ফেরান অধিনায়ক। এবারও হতাশ হতে হয়নি তাকে।

নিজের তৃতীয় ওভারে ১০ রান দিয়ে সাঙ্গাকারার দামি উইকেট তুলে নেন মুস্তাফিজ। বাঁহাতি এই পেসার দুর্দান্ত ছিলেন পরের ওভারেও। সেই ওভারে কোনো উইকেট না পেলেও দেন মাত্র তিন রান।

মালিক প্রথম বলে সিঙ্গেল নেওয়ার পর আর স্ট্রাইক পাননি। পরের পাঁচ বলের চারটিই ড্যারেন ব্রাভোর কাছ থেকে ডট নেন মুস্তাফিজ। অন্য বল থেকে আসে দুই রান। মুস্তাফিজ ছাড়া ছয়ের নিচে রান দেননি লাহোরের আর কোনো বোলার।

ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় রান তাড়ায় ১৭.২ ওভারে ১৩৬ রানে গুটিয়ে যায় লাহোর। মুলতানের ৪৩ রানের জয়ে বড় অবদান জুনায়েদ খান ও ইমরান তাহিরের। তাদের দারুণ বোলিংয়ে মাত্র ৪ রানের মধ্যে শেষ ৭ উইকেট হারায় লাহোর।

হ্যাটট্রিক করা বাঁহাতি পেসার জুনায়েদ ২৪ রানে নেন ৩ উইকেট। লেগ স্পিনার তাহির ৩ উইকেট নেন ২৭ রানে। দুটি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ ইরফান ও কাইরন পোলার্ড।

Be the first to comment on "পিএসএলে অভিষেক ম্যাচেই চমক মোস্তাফিজের"

Leave a comment

Your email address will not be published.




nineteen − fourteen =