স্ত্রীর পরকীয়ায় ঘটককে গলা কেটে হত্যা

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে কুদরত আলী (৪০) নামে এক ঘটককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। রবিবার সকালে উপজেলার তারাগুনিয়া শালিমপুর ডাকবাংলার পেছনের বাগান থেকে ওই ঘটকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

কুদরত আলী খলিশাকুন্ডি এলাকার পরেস মন্ডলের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মাছুরা খাতুনকে (২৫) আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, স্ত্রী মাছুরা খাতুনের পরকীয়ার জেরে শনিবার গভীর রাতে নিজ ঘরে ঘটক কুদরত আলীকে ধারালো অন্ত্র দিয়ে নির্মমভাবে গলা কেটে হত্যা করে তার মরদেহ বাড়ির পার্শ্ববর্তী বাগানের মধ্যে ফেলে রাখা হয়। রোববার সকালে স্থানীয়রা নিহতের মরদেহ ঘটনাস্থলে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় মাছুরা খাতুনকে আটক করেছে পুলিশ।

দৌলতপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাদত হোসেন জানান, স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের জের ধরে কুদরত আলী ঘটককে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় স্ত্রী মাছুরা খাতুনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Be the first to comment on "স্ত্রীর পরকীয়ায় ঘটককে গলা কেটে হত্যা"

Leave a comment

Your email address will not be published.




twenty + thirteen =