ফেব্রুয়ারি কেন ২৮ দিনের

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : বছরের অন্য মাস ৩০ বা ৩১ দিনে হয়ে থাকে। কিন্তু ফেব্রুয়ারি মাস এলেই তা কমে ২৮ বা ২৯ দিনে নেমে আসে। এর মধ্যে চার বছর পর পর আসে ২৯ দিন। যাকে বলা হয় লিপ ইয়ার। ফেব্রুয়ারি মাসের এ ২৮ দিনের রহস্য অনেকেরই জানা নেই। তাই আসুন জেনে নেই সেই অবাক করা কাহিনি।

জানা গেছে, আমরা গ্রেগরিয়ান যুগের ক্যালেন্ডার ব্যবহার করে থাকি। এর আগে জুলিয়ান ক্যালেন্ডারের প্রচলন ছিল। সে সময় রোমনরা গ্রিক পঞ্জিকা অনুযায়ী বছর ধরত ৩০৪ দিনের। মাস ছিল দশটি। জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসের কোনো অস্তিত্বই ছিল না। প্রথম মাস ছিল মার্চ। রাজা নূমা পম্পিলিয়াস জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসকে ক্যালেন্ডারে যুক্ত করেন। তাই ফেব্রুয়ারি ছিল বছরের শেষ মাস। জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিকে ৩১ দিন ধরা হতো সে সময়।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, তখন বিজোড় মাসকে অসুখী হিসেবে ধরা হতো। রোমানদের বিশ্বাস ছিল, বিজোড় সংখ্যায় থাকলে ভূতের উপদ্রব হতে পারে। তাই নূমা পম্পিলিয়াস ফেব্রুয়ারি মাসকে ২৮ দিনের করেন। তবে প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাস ২৮ দিনের হয় না। সূর্যের চারদিকে পৃথিবী ঘুরতে সময় নেয় ৩৬৫ দিন ৬ ঘণ্টা। সেই হিসেবে প্রত্যেক ৪ বছর পর ২৪ ঘণ্টা, অর্থাৎ একদিন অতিরিক্ত থেকে যায়। সে দিনটি যুক্ত করা হয় ফেব্রুয়ারি মাসের সঙ্গে। তাই ৪ বছর পর ফেব্রুয়ারি মাসের দিনসংখ্যা দাঁড়ায় ২৯।

Be the first to comment on "ফেব্রুয়ারি কেন ২৮ দিনের"

Leave a comment

Your email address will not be published.




three × 3 =