বাংলাদেশে গণতান্ত্রিকভাবেই নির্বাচিত সরকার চায় ভারত

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বলেছেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশ সিসেবে ভারত চায় অন্যান্য বিশেষ করে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে গণতন্ত্রের চর্চা থাকুক। গণতান্ত্রিকভাবেই এদেশে সরকার নির্বাচিত হোক। একইসঙ্গে নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ হয়, নির্বাচন কমিশন যাতে তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারে, সবদলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ ও সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হয়, এটিই তারা (ভারত) অাশা করে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সুষমা স্বরাজ এসব কথা বলেছেন। রবিবার রাতে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান দলটির মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, বাংলাদেশে যে রাজনৈতিক অবস্থা বিরাজ করছে সে সম্পর্কে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আলোচনা করেছেন। একাদশ নির্বাচন নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন আলোচনা করেছেন। যে সমস্যাগুলো রয়েছে তা তুলে ধরেছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব সমস্যার কথা শুনেছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, অত্যন্ত সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বেগম খালেদা জিয়ার বৈঠক হয়েছে। আলোচনায় উভয় দেশের সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করার কথা বলা হয়েছে।

ফখরুল জানান, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও তারা আলোচনা করেছেন। তিনি (খালেদা জিয়া) বলেছেন, রোহিঙ্গাদের এই অবস্থার অবসান হতে হবে। তাদের সাময়িক আশ্রয় দেয়া হয়েছে এবং তাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। তাদের নিরাপদ একটি অবস্থা তৈরি করতে হবে।

এ বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একমত হয়েছে এবং বলেছেন আমরাও এটাই চাই। যে রোহিঙ্গারা এদেশে এসেছে তারা নিরাপদ অবস্থায় যাতে দেশে ফিরে যেতে পারে। মিয়ানমার সরকারের ওপর তারা তাদের চাপ অব্যাহত রেখেছেন। গোটা বিশ্ব অব্যাহত রেখেছে। তারা অাশা করে নিরাপদ পরিবেশেই রোহিঙ্গারা ফিরে যেতে সক্ষম হবে।

বৈঠকে খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিএনপির প্রতিনিধি দলে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. মঈন খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

Be the first to comment on "বাংলাদেশে গণতান্ত্রিকভাবেই নির্বাচিত সরকার চায় ভারত"

Leave a comment

Your email address will not be published.




one × four =