অতিরিক্ত সময়ের গোলে পিএসজির জয়

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : গোল মিসের মহরায় এক সময় পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল নেইমারের পিএসজি। তবে যোগ করা সময়ের গোলে শেষ পর্যন্ত দুর্বল দিজোঁর বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে উনাই এমেরির দল।

প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরুটা ভাল হয়নি নেইমারদের। শুরু থেকেই অগোছালো ফুটবল খেলতে থাকে নেইমার-এমবাপেরা। এরই মধ্যে বিরতির ঠিক আগে গোলের সুযোগ পেয়েছিল দলটি। তবে ৩০ গজ দূর থেকে দানি আলভেজের ফ্রি-কিকে বল লাগে পোস্টে। ফলে গোলশূন্য অবস্থায় বিরতিতে যায় দলটি।

বিরতি থেকে ফিরে স্বরূপে ফেরে পিএসজি। সঙ্গে শুরু হয় গোল মিসে মহড়া। ম্যাচের ৫০ মিনিটে গোল করার মত অবস্থানে বল পেয়েও উড়িয়ে মারেন ডি মারিয়া। এর তিন মিনিট পর চার গজ দূর থেকে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন এমবাপে।

ম্যাচের ৬০ মিনিটে এমবাপে শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। আর পরের মিনিটে নেইমারের বাড়ানো বলে মার্কিনিয়োসের হেড লাগে ক্রসবারে। দুই মিনিট নেইমারের পাস ধরে এমবাপের কোনাকুনি শট দারুণ নৈপুণ্যে ঠেকান দিজোঁর গোলরক্ষক।

অবশেষে ম্যাচের ৭০ মিনিটে পিএসজিকে লিড এনে দেন মুনিয়ে। নেইমারের শট গোলরক্ষক ঠেকালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি বলে নিচু শটে লক্ষ্যভেদ করেন বেলজিয়ামের এই ডিফেন্ডার। তবে ৮৭ মিনিটে সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা। ৩০ গজ দূর থেকে দারুণ ভলিতে দলকে সমতা ফেরান ফরাসি ফরোয়ার্ড জানু।

স্বাগতিক শিবিরের সমতায় ফেরার পর আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় পিএসজি। সবাই যখন পয়েন্ট হারানো নিয়ে চিন্তিত ঠিক ওই সময় নিজের দ্বিতীয় গোল করে দলকে আবারও লিড এনে মুনিয়ে। বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে সঙ্গে লেগে থেকে ডিফেন্ডারের বাধা এড়িয়ে ছয় গজ বক্সের মুখে কাটব্যাক করেন এমবাপে। আর সহজেই গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন বেলজিয়ামের ডিফেন্ডার মুনিয়ে। নয় ম্যাচে আট জয় ও এক ড্রয়ে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে পিএসজি।

Be the first to comment on "অতিরিক্ত সময়ের গোলে পিএসজির জয়"

Leave a comment

Your email address will not be published.




ten − nine =