প্রথম দিনেই চারশ পার পোট্রিয়দের

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : টসে জিতে আরও একবার ফিল্ডিং বেছে নেয়ার মাশুল দিচ্ছে বাংলাদেশ। ব্লুমফন্টেইন টেস্টের প্রথম দিনে টাইগার বোলারদের একেবারে হেসে খেলে সামলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট চালিয়ে প্রথম দিনেই তারা তুলে ফেলেছে ৩ উইকেটে ৪২৮ রানে। রান রেট ৪.৭৫। রানের গাড়ি যেভাবে ছুটছে তাতে ফাফ ডু প্লেসিসের দল কোথায় গিয়ে থামবে, বলা মুশকিল।

বাংলাদেশ অবশ্য একটি জায়গায় স্বান্ত্বনা খুঁজতে পারে। টেস্টের ইতিহাসে প্রথম দিনে এটিই কোনো দলের সবচেয়ে খারাপ পারফম্যান্স নয়। বরং তালিকায় বাংলাদেশ পড়বে অনেক নিচে। তার চেয়েও মজার বিষয়, প্রথম দিনে সবচেয়ে খারাপ বোলিং করা দলের তালিকায় সবচেয়ে উপরের নামটি এই দক্ষিণ আফ্রিকারই।

১৯১০ সালে সিডনিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম দিনে ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৯৪ রান তুলে ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। বলতে পারেন, এ তো আধুনিক ক্রিকেটের খবর নয়। এখনকার ক্রিকেটের পরিসংখ্যান ঘাঁটলেও কাটা পড়তে হবে দক্ষিণ আফ্রিকাকেই। ২০১২ সালে অ্যাডিলেডে তাদের আরও একবার এমন লজ্জায় ডুবিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সেবার প্রথম দিনে ৫ উইকেটে ৪৮২ রান করে অজিরা।

এই পরিসংখ্যান দেখে স্বস্তি পেলেও নিজেদের পারফম্যান্স নিয়ে মোটেই স্বস্তির ঢেকুর তুলতে পারবে না বাংলাদেশ। দিনভর যে রীতিমত বাজে বোলিং করে গেছেন মুস্তাফিজ-রুবেল-তাইজুলরা। তাদের নির্বিষ বোলিংয়ের কারণে প্রথম দুই সেশনে মাত্র একটি উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

তবে প্রথম দুই সেশনের অস্বস্তি শেষ সেশনে এসে কিছুটা দূর করেছিলেন বাংলাদেশের বোলাররা। ডিন এলগার আর এইডেন মার্করামের বড় জুটির পর দ্রুতই ৩ উইকেট তুলে নিতে পেরেছিল টাইগাররা। কিন্তু শেষ বিকেলে হাশিম আমলা আর ফাফ ডু প্লেসিসের জুটিটি রান তুলেছে বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে।

চতুর্থ উইকেটে আমলা আর ডু প্লেসিস মিলে এখন পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন আছেন ১৪০ রানে। শেষ বিকেলে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরির খুব কাছে এসে পড়েছেন হাশিম আমলা। প্রোটিয়া এই ব্যাটিং স্তম্ভ দিনশেষে অপরাজিত আছেন ৮৯ রানে। অপরপ্রান্তে অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস ব্যাট করছেন ৬২ রান নিয়ে।

এর আগে উদ্বোধনী জুটিতে ২৪৩ রান তুলেন ডিন এলগার আর এইডেন মার্করাম। এলগারকে ১১৩ রানে আউট করেন শুভাশীষ রায়। এরপর দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে মার্করামকে বোল্ড করেন রুবেল হোসেন। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামা এই ব্যাটসম্যান আউট হন ১৪৩ রান করে। আর টেম্বা বাভুমাকে ৭ রানে সাজঘরে ফিরিয়ে দ্বিতীয় উইকেটের দেখা পান শুভাশীষ।

প্রসঙ্গত, ব্লুমফন্টেইনের মাঙ্গুয়াঙ ওভালে সর্বশেষ টেস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছিল আজ থেকে ৯ বছর আগে, ২০০৮ সালে। সেবারও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রতিপক্ষ ছিল বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ইনিংস ও ১২৯ রানের ব্যবধানে।

Be the first to comment on "প্রথম দিনেই চারশ পার পোট্রিয়দের"

Leave a comment

Your email address will not be published.




five × one =