‘আমদানি-রফতানিতে শতভাগ পণ্য স্ক্যান করা হবে’

Print Friendly, PDF & Email

[ A+ ] /[ A- ]

নিউজ ডেস্ক : আমদানি-রফতানিতে আরও স্বচ্ছতা আনতে আগামী বছর থেকে শতভাগ পণ্য স্ক্যান করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনি বলেন, এজন্য কাস্টম হাউস, চট্টগ্রামের জন্য স্ক্যানার ক্রয়, স্থাপন ও এ কার্যক্রম দুই বছরের জন্য সার্বক্ষণিক সচল রাখা ও রক্ষণাবেক্ষণের প্রতিষ্ঠান নিয়োগের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ৯০ কোটি ৩১ লাখ।

বুধবার (৮ মে) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সংক্রান্ত ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। কমিটির আহ্বায়ক অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী জানান, সভায় চট্টগ্রাম কাস্টম হাউজের জন্য দুটি কন্টেইনার স্ক্যানার ক্রয়, স্থাপন ও দুই বছরের জন্য রক্ষণাবেক্ষণের জন্য একটি প্রতিষ্ঠান নিয়োগের ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এজন্য ৯০ কোটি ৩১ লাখ টাকা ব্যয় হবে।

আগামী বছর থেকে আমদানি ও রফতানিকৃত শতভাগ মালামাল স্ক্যান করে যাবে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি আইনে নিয়ে আসা হবে। চট্টগ্রামে চারটি স্ক্যানার রয়েছে এ দুটি হলে ছয়টি হবে। তবে আরও চারটি লাগবে। সারা দেশে আরও লাগবে চারটি। কী মাল আসছে বা যাচ্ছে সব বোঝা যাবে। পৃথিবীতে এমন কিছু নেই যা সিস্টেমে পাওয়া যাবে না।’

তিনি বলেন, ‘মানিলন্ডারিং ওভার বা আন্ডার ইনভয়েস বা টাকা বাইরে চলে যায় সব জানা যাবে। এজন্য সব মিলে ১৬টি স্ক্যানার লাগবে। আমরা একদিকে দেখবো কী যাচ্ছে। পাশাপাশি কী আসবে তাও দেখার জন্য নিজস্ব ইউং ডেভলপ করছি এবং সে ইউংয়ের সার্টিফিকেট ছাড়া কোনো মাল বাইরে যাবে না বা যা আসবে বা যাবে তার প্রাইস যথাযথভাবে মূলায়ন করতে পারবো।’