গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সূচকে বাংলাদেশের ৪ ধাপ অবনমন

Print Friendly, PDF & Email

[ A+ ] /[ A- ]

নিউজ ডেস্ক : গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সূচকে র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চার ধাপ অবনমন হয়েছে। সাংবাদিকদের কর্মপরিবেশ এবং কাজের স্বাধীনতা নিয়ে ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডমের সূচকটি প্রকাশ করেছে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস।

সূচকে শীর্ষ অবস্থান নরওয়ে ধরে রাখলেও সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে রয়েছে তুর্কমেনিস্তান। তবে দক্ষিণ এশিয়ায় ভালো অবস্থানে রয়েছে ভুটান।

১৮০টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করে ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম সূচকে শতকরা ২৪ ভাগ দেশের পরিবেশ সাংবাদিকদের জন্য ‘ভালো’ কিংবা ‘সন্তোষজনক’ বলে জানিয়েছে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস। ৩৭ শতাংশ দেশকে ‘প্রবলেমেটিক’, ২৯ ভাগ দেশকে ‘সঙ্কটজনক’ ও ১১ শতাংশ দেশকে ‘খুব মারাত্মক’ হিসাবে বিবেচনা করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাংবাদিকরা বিরূপ পরিবেশ মোকাবেলা করলেও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের এগিয়ে যাওয়া আশা দেখাচ্ছে৷

সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে তুর্কমেনিস্তান

সাংবাদিকদের কর্মপরিবেশ এবং কাজের স্বাধীনতার দিক থেকে ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম সূচকে সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে রয়েছে তুর্কমেনিস্তান। গত বছর উত্তর কোরিয়ার অবস্থান সবার শেষে থাকলেও এবার তাদের অবস্থান তুর্কমেনিস্তানের ঠিক ওপরে।

আবারো শীর্ষে নরওয়ে
বিগত বছরের মতো ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম সূচকে শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে নরওয়ে। তার পরেই রয়েছে ফিনল্যান্ড এবং সুইডেন। ব়্যাংকিংয়ে তৃতীয় শীর্ষ দেশ থেকে নেমে গেছে নেদারল্যান্ডস।

জার্মানির দুই ধাপ উন্নতি
আগের বছরের ১৫তম অবস্থান থেকে ১৩তম অবস্থানে উঠে এসেছে জার্মানি৷ তবে সাংবাদিকদের জন্য প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও জার্মানির অগ্রগতির কারণ অন্যদের পিছিয়ে যাওয়া। যেমন- অস্ট্রিয়া গত বছরের ১১তম অবস্থান থেকে এবার ১৬-তে নেমেছে।

আগের অবস্থানে বাংলাদেশ

২০১৯ সালের প্রেস ফ্রিডম সূচকে গতবারের জায়গায় অবস্থান করছে বাংলাদেশ। ১৮০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৫০তম। ব়্যাংকিংয়ে চার ধাপ পেছালেও অন্য দেশগুলো বেশি পিছিয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি।

দক্ষিণ এশিয়ায় ভালো অবস্থানে ভুটান

সূচকে ৮০তম স্থানে থাকলেও দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে রয়েছে ভুটান। দক্ষিণ এশিয়ায় ভুটানের পরে অবস্থান করছে মালদ্বীপ। দেশটির সূচকে ৯৮তম স্থানে অবস্থান করছে।

ভারত-পাকিস্তান কাছাকাছি
সাংবাদিকদের কর্ম পরিবেশের দিক থেকে কাছাকাছি অবস্থানে রয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। আগের বছরের মতো ১৪০তম অবস্থানে আছে ভারত এবং ১৪২তম স্থানে পাকিস্তান।

‘সমস্যাগ্রস্ত’ যুক্তরাষ্ট্র
স্কোর অনুযায়ী, তিন ধাপ নেমে সূচকে ৪৮তম অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সূচক অনুযায়ী ৩৭ শতাংশ দেশের মতো ‘সমস্যাগ্রস্ত’ (প্রবলেমেটিক) দেশ বিবেচিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সাংবাদিকদের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরূপ অবস্থানকে এর জন্য দায়ী করেছে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস।