ইরানে ‘হিজাব বিদ্রোহ’ : আটক ২৯ নারী

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : নতুন ধরনের এক আন্দোলনে নেমেছেন ইরানের নারীরা। মাথা ঢাকার জন্য যে হিজাব পড়া তাদের জন্য বাধ্যতামূলক সেই হিজাব খুলে ফেলছেন তারা। তবে আন্দোলন শুধু হিজাব খোলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই, মাথা থেকে হিজাব খুলে একটি লাঠিতে বেঁধে সেটি ওড়াচ্ছেন তারা।

এর হিজাব ওড়ানোর সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে ‘হোয়াইটওয়েনেসডেজ’ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে। আর এর জন্যই সম্প্রতি ২৯ নারীকে আটক করেছে ইরান প্রশাসন।

ইরানের আইনে স্পষ্ট করে বলা আছে- নারীদের মাথা এমনভাবে ঢাকতে হবে, যাতে চুল দেখা না যায়৷ আর পরতে হবে ঢোলা বোরকা, যা পা পর্যন্ত ঢেকে রাখবে।

পোশাকের জন্য আইনে এমন বাধ্যবাধকতার বিরুদ্ধে বেশ কিছুদিন ধরেই প্রতিবাদ চলছিল ইরানে। আর সূত্র ধরেই এল ‘হোয়াইটওয়েনেসডেজ।’

ইরানে হিজাব খুলে ওড়ানোর কাজটি গতবছর প্রথম করেছিলেন সাংবাদিক মিসাহ আলিনেজাদ। তিনি এখন কারাগারে।

কিন্তু কারাগারে যাওয়ার আগেই নিজের হিজার ওড়ানোর দৃশ্যটি ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেন তিনি। ফলে তিনি নিজে কারাগারে থাকলেও ওই ভিডিও এখন ভাইরাল।

বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ইরান সরকার। তবে দেশটির প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, মানুষের ভালোর জন্যই আইন। মানুষের যা পছন্দ নয়, ইরান সরকার সেই আইন বলবৎ করতে চায় না। কিন্তু হিজাব প্রসঙ্গে কোনো কথাই তিনি বলেননি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এভাবে নারীদের গ্রেফতার করলে ‘হিজাব বিদ্রোহ’ আরও বড় আকার ধারণ করবে৷

সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

Be the first to comment on "ইরানে ‘হিজাব বিদ্রোহ’ : আটক ২৯ নারী"

Leave a comment

Your email address will not be published.




six + twelve =