ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : ত্রিদেশীয় সিরিজে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফিরতি ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। দলীয় রান পঞ্চাশের কোটা ছোঁয়ার আগেই ফিরে গেছেন চার ব্যাটসম্যান! এরপর সাব্বির রহমান আর আবুল হাসানও দ্রুত ফিরে যাওয়ায় অল্পতেই গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা পেয়ে বসেছে মাশরাফি বিন মতুর্জার দলকে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৮.৩ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৬ উইকেটে ৭১। ব্যাট করছিলেন মুশফিকুর রহিম (১৭*) ও নাসির হোসেন (০*)।

তিন ওভারের ব্যবধানে ফিরে গেছেন এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। পঞ্চম ওভারে তামিম আউট হলে ৩ উইকেটে ১৬ রান নিয়ে ধুঁকছিল বাংলাদেশ। এরপর ১১তম ওভারে সুরঙ্গা লাকমলের বাউন্সার হুক করতে গিয়ে ফাইন লেগে দুশ্মন্ত চামারার তালুবন্দী হন মাহমুদউল্লাহ (৭)। এমন বিপর্যয় থেকে ঘুরে দাঁড়াতে মুশফিক–সাব্বিরের ব্যাটে তাকিয়ে ছিল বাংলাদেশ দল। কিন্তু অস্থিরতার পরিচয় দিয়ে দ্রুতই ফিরে যান সাব্বির। ১৭তম ওভারে থিসারা পেরেরাকে মিড অনে তুলে মারতে গিয়ে শেহান মাদুশঙ্কার তালুবন্দী হন। তাঁর আউটে বাংলাদেশের বিপর্যয় আরও ঘনীভূত হয়েছে।

এর আগে তৃতীয় ওভারে রানের খাতা খোলার আগেই সুরঙ্গা লাকমলের বলে প্লেড অন হয়ে ফিরেছেন এনামুল। টুর্নামেন্টে এ নিয়ে টানা চার ম্যাচে প্রত্যাশার প্রতিদান দিতে ব্যর্থ হলেন এই ওপেনার। তাঁর ফিরে যাওয়ার পর সাকিব আল হাসানও বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে পারেননি। পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে তামিমের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির শিকার হয়ে রানআউট হন সাকিব (৮*)। সরাসরি থ্রোয়ে স্টাম্প ভেঙেছেন লঙ্কান ফিল্ডার দানুস্কা গুনাতিলোকা। এক বল পরই ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্ট অঞ্চলে গুনাতিলোকার দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হন তামিম (৫)।

বাঁ–হাতি স্পিনার সানজামুল ইসলামের পরিবর্তে বাংলাদেশ দলে ঢুকেছেন পেসার আবুল হাসান রাজু। নিচের দিকে ব্যাট করতে পারলেও আবুল হাসানও উইকেটে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। সাব্বির আউট হওয়ার এক ওভারই পরই উইকেটের পেছেন নিরোশান ডিকভেলাকে ক্যাচ দেন তিনি।  ২০০৫ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০৮ রানে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে লঙ্কানদের বিপক্ষে এটা বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোর।

গ্রুপ পর্বের এই শেষ ম্যাচটি জিতলে ফাইনালে উঠবে শ্রীলঙ্কা। হারলেও শ্রীলঙ্কার (-০.৯৮৯) ফাইনালে ওঠার পথ খোলা থাকবে, তবে সে ক্ষেত্রে জিম্বাবুয়ের (-১.০৮৭) চেয়ে নেট রানরেটে এগিয়ে থাকত হবে দিনেশ চান্ডিমালের দলকে।

প্রায় তিন বছর পর একাদশে হাসান

আবুল হাসান শেষ ওয়ানডে খেলেছিলেন ২০১৫ সালের এপ্রিলে, পাকিস্তানের বিপক্ষে। এরপর আর দেশের হয়ে খেলার সুযোগ হয়নি এই অলরাউন্ডারের। এবার সুযোগ পেলেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যাটে-বলে দারুণ পারফরম্যান্সের পরও বাদ পড়েছেন বাঁহাতি স্পিনার সানজামুল ইসলাম। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে খেলেছিলেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন।
বাংলাদেশ দল : তামিম ইকবাল, এনামুল হক, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা, আবুল হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

শ্রীলঙ্কা দলে দুই পরিবর্তন

বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কা দলে এসেছে দুটি পরিবর্তন। ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথমবারের মতো খেলছেন ওপেনার দানুশকা গুনাথিলকা। দলে ফিরেছেন পেসার দুশমন্থ চামিরা।

চোটের জন্য টুর্নামেন্ট শেষ হয়ে গেছে ওপেনার কুসল মেন্ডিসের। চোটের জন্য একাদশে নেই পেসার নুয়ান প্রদিপ।

শ্রীলঙ্কা দল : উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলকা, কুসল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, নিরোশান ডিকভেলা, আসেলা গুনারত্নে, থিসারা পেরেরা, আকিলা দনঞ্জয়া, লাকশান সান্দাকান, দুশমন্থ চামিরা, সুরঙ্গা লাকমল।

Be the first to comment on "ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ"

Leave a comment

Your email address will not be published.




3 × 2 =