ঢাবি প্রক্টর অবরুদ্ধ, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর ‘ছাত্রলীগকে লেলিয়ে দেওয়ার’ অভিযোগ এনে প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানীকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ রেখে বিক্ষোভ করছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার বেলা ১১টা থেকে এ বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় প্রশাসনকে ‘মেরুদণ্ডহীন’ আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানীর পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা তিনটি দাবি উত্থাপন করেছেন। তা হলো- ছাত্রলীগের বঙ্গবন্ধু হলের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন রহমানের বহিষ্কার, ছাত্রী নিপীড়নের বিচার এবং আন্দোলনের সমন্বয়ক মশিউরকে কেন পুলিশে দেয়া হয়েছে তার কারণ স্পষ্ট করা।

শিক্ষার্থীদের অঘোষিত এ কর্মসূচিতে হাজার হাজার শিক্ষার্থী আন্দোলনে অংশ নিয়েছেন। প্রক্টর কার্যালয়ের জানালার কাচ ভাঙচুর করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বিকেল পৌনে তিনটার দিকে প্রক্টর তদন্ত কমিটি গঠন করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলেও শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত চিহ্নিত থাকায় তাকে বহিষ্কারের দাবি জানান। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত (বিকেল পৌনে তিনটা) শিক্ষার্থীরা প্রক্টর কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয় বিক্ষোভ করছেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (১৫ জানুয়ারি) ঢাবির অধিভুক্ত ৭ কলেজ বাতিলের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন ‘ছাত্রলীগের হস্তক্ষেপে পণ্ড’ করা অভিযোগ উঠে। এ কাজে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ছাত্রলীগকে ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ তোলেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এর আগে ওইদিন (১৫ জানুয়ারি, সোমবার) পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলনকারীরা। সকাল সাড়ে ৭টায় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে শিক্ষার্থীরা। সেখান থেকে বেলা ১১টার দিকে মিছিল বের করে কলা ভবন, ব্যবসায়ে শিক্ষা অনুষদ হয়ে সূর্যসেন হল, ভিসি চত্বর, টিএসসি, শহীদ মিনার হয়ে কার্জন গিয়ে বিভিন্ন সড়ক পদক্ষিণ করে পুনরায় টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে সমাবেশ করেন। সেখানে সাড়ে ১১টা থেকে অবস্থান নিয়ে রাস্তা অবরোধ করে রাখেন আন্দোলনকারীরা। এ সময় আশপাশের এলাকায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

Be the first to comment on "ঢাবি প্রক্টর অবরুদ্ধ, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ"

Leave a comment

Your email address will not be published.




seven + 20 =