প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধ

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে পুরোপুরি প্রস্তুত সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধ। ধোয়া মোছা শেষে রং তুলির আঁচড়ে বর্ণিল রূপ ধারণ করেছে মহান এই স্থাপনাটি। ইটের দেয়াল থেকে শুরু করে বাগানের ঘাসকেও সাজানো হয়েছে পরিপাটি রূপ দিয়ে।

ফুলে ফুলে অন্যরকম এক পরিবেশ বিরাজ করছে গোটা স্মৃতিসৌধে। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদন নির্বিঘ্ন করতে আইনশৃংখলা বাহিনীও নিয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি।

জাতীয় স্মৃতিসৌধের দায়িত্বে থাকা গণপূর্ত বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মিজানুর রহমান বলেন, মহান বিজয় উদযাপনের জন্য দুই সপ্তাহ ধরে অর্ধ শতাধিক পরিছন্নকর্মী স্মৃতিসৌধে নিয়োজিত রয়েছে। ধোয়া মোছা থেকে শুরু করে এখন সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ। এজন্য ১৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু করে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্মৃতিসৌধে দর্শনার্থীদের প্রবেশ বন্ধ রাখা হয়েছিল। এখন শুধুই মূল আনুষ্ঠানিকতার অপেক্ষা।

আগামীকাল বিজয় দিবসের প্রত্যুষেই শহীদদের রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানোর কথা রয়েছে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর। এরপর একে একে জাতীয় সংসদের স্পিকার, বিরোধী দলীয় নেত্রী, মন্ত্রী-সাংসদ, বিচারক, কুটনৈতিক ব্যক্তিবর্গসহ রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন শ্রদ্ধা জানাবেন শহীদদের প্রতি।

শ্রদ্ধা নিবেদন নির্বিঘ্ন করতে এবার জঙ্গি হামলার আশংকাকেও চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে স্থানীয় পুলিশ। ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান এ বিষয়ে বলেন, আমেরিকায় বাংলাদেশি যুবক আকায়েদ উল্লাহ বোমাসহ আটক হওয়ায় আমরা অত্যন্ত সতর্ক। তার যেহেতু আন্তজার্তিক জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে তাই জঙ্গি হামলার আশংকাকে আমরা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। এজন্য পুরো জাতীয় স্মৃতিসৌধ ঢাকা থাকবে নিরাপত্তার চাদরে। সিসি টিভি ক্যামেরা দিয়েও সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হবে।

আগামীকাল শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানোর পালা শেষ হলে সর্ব সাধারণের জন্য খুলে দেয়া হবে জাতীয় স্মৃতিসৌধের প্রধান ফটক। এরপর স্মৃতিসৌধের মূল বেদীতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন সাধারণ মানুষ।

Be the first to comment on "প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধ"

Leave a comment

Your email address will not be published.




5 × four =