সমাবেশ থেকে জনগণ আগামীর বার্তা পেয়েছে : মোশাররফ

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল। যার প্রমাণ ১২ নভেম্বর রাজধানী সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশ। যে সমাবেশ থেকে দেশের জনগণ আগামীর বার্তা পেয়েছে বর্তমান সরকারের সময় শেষ হয়ে গেছে। জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে আগামী নির্বাচনে খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে এবং রাষ্ট্রপরিচালনার দায়িত্ব দিতে প্রস্তুত।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী কৃষকদল এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা আদায় করে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।

বর্তমান সংসদকে অবৈধ ও অকার্যকর আখ্যা দিয়ে রায় দিতে পারে আশঙ্কা থেকে সরকার প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগে বাধ্য করেছে উল্লেখ করে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, আমরা শুনতে পাচ্ছিলাম সংসদের অনির্বাচিত ১৫৪ জনের বিরুদ্ধে একটি রিট করা আছে। যার রায় প্রধান বিচারপতি ছুটি থেকে দেশে এসে দেবেন। হয়ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে ১৫৪ আসন অবৈধ আর সেটা হলে সরকার অবৈধ হয়ে যাবে। সেই আশঙ্কা থেকে সরকার সুস্থ মানুষকে অসুস্থ বানিয়ে প্রথমে দেশ ত্যাগ পরবর্তীতে পদত্যাগে বাধ্য করেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটি টার্নিং পয়েন্ট ৭ নভেম্বর। এর মাধ্যমে জিয়াউর রহমান রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে সংবিধানের বেশকিছু প্রশ্নবোধক বিতর্কের অপসারণ করেন। শুধু তাই নয়, আওয়ামী লীগ যেখানে ব্যর্থ সেখানে সফল বিএনপি। আর তাই আওয়ামী লীগ জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়ার পরিবার ও বিএনপিকে ভয় পায়। তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালায়। রাষ্ট্রের স্তম্ভগুলোকে ধ্বংস করে আওয়ামী লীগ অলিখিত বাকশাল প্রতিষ্ঠিত করতে চায়।

আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কৃষক দলের সহ-সভাপতি নাজিম উদ্দিন প্রমুখ।

Be the first to comment on "সমাবেশ থেকে জনগণ আগামীর বার্তা পেয়েছে : মোশাররফ"

Leave a comment

Your email address will not be published.




5 × four =