মেডিকেলে ভর্তিচ্ছু ৯৬ শিক্ষার্থীর ‘ভাগ্য’ খুলছে

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তিচ্ছু ৯৬ শিক্ষার্থীর ‘ভাগ্য’ খুলছে। জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রস্তুুতকৃত অপেক্ষমাণ পাঁচশ’ জনের তালিকার মধ্য থেকে শীর্ষ ৯৬ ছাত্র-ছাত্রী বিভিন্ন সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবেন। তবে তাদের কেউই আপাতত রাজধানীর কোনো কলেজে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন না।

আগামী ৫ নভেম্বর থেকে ১০ নভেম্বরের মধ্যে সুযোগ প্রাপ্তদের নামের তালিকা প্রকাশ করবে স্বাস্থ্য অধিদফতর। তাদের মধ্যে কে কোন মেডিকেল কলেজে কবে ভর্তি হবেন তাও উল্লেখ করে দেয়া হবে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের একটি নির্ভরযোগ্য দায়িত্বশীল সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

গত ৬ অক্টোবর রাজধানীসহ সারাদেশে ২০টি সরকারি মেডিকেল কলেজের ৩৪টি কেন্দ্রে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৮২ হাজার ৮৫৬ জন ছাত্র-ছাত্রীর মধ্য থেকে জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে ৩১ সরকারি মেডিকেল কলেজে মোট ৩ হাজার ৩১৮ শিক্ষার্থীকে ভর্তির জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত করা হয়।

নির্বাচিত ছাত্রছাত্রীদের ভর্তির জন্য ১৭ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত প্রাপ্ত পরিসংখ্যান অনুসারে ঢাকার বাইরের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে ৯৬টি আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি হয়নি। জানা গেছে, ঢাকা ও এর আশেপাশের কোনো সরকারি মেডিকেল কলেজে আসন ফাঁকা নেই।

চলতি বছর প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নপত্রের ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত সর্বোচ্চ নম্বর ৯০ দশমিক ৫ ও সর্বনিম্ন ৭০ দশমিক ৫।

উল্লেখ্য, ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নপত্রে নেয়া পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০। ৪০ নম্বর পেয়ে সরকারি ও বেসরকারি উভয় মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হয়েছেন ৪১ হাজার ১৩২ জন। তাদের মধ্যে ১৯ হাজার ৯১২ জন ছাত্র ও ২১ হাজার ২১০ জন ছাত্রী।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, সরকারি মোট ৩ হাজার ৩১৮টি কোটার মধ্যে সাধারণ আসন ৩ হাজার ২৩১। মুক্তিযোদ্ধা কোটা ৬৭, পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠী কোটায় রয়েছে ২০টি আসন। বেসরকারি মেডিকেল কলেজে আসন সংখ্যা ৬ হাজার ২৫০।

Be the first to comment on "মেডিকেলে ভর্তিচ্ছু ৯৬ শিক্ষার্থীর ‘ভাগ্য’ খুলছে"

Leave a comment

Your email address will not be published.




1 × one =