রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাত করেছিলেন হিলারি : ট্রাম্প

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগ নিয়ে চলমান তদন্তে প্রচণ্ড চাপের মুখে ডোনাল্ড ট্রাম্প এবার হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন। ডেমোক্র্যাটিক পার্টিও তার আক্রোশের শিকার হয়েছে।

রবিবার সকালে একগুচ্ছ টুইটে ট্রাম্প হিলারির বিরুদ্ধে বিষোদগার করেন এবং দাবি করেন, রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাত করেছিলেন হিলারি ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টি।

রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাতের ইস্যুতে চলমান তদন্তের ধারাবাহিকতায় প্রথম কোনো ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করতে চলেছে কর্তৃপক্ষ- এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পর অস্থির হয়ে পড়েন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। সোমবারের মধ্যে সন্দেহভাজন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

ট্রাম্পকে বিজয়ী করার উদ্দেশ্যে ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ বিষয়ে তদন্তের প্রথম চার্জ গঠন করা হয়েছে। এ মামলার তদন্তের স্বার্থে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের নিয়োগ দেওয়া বিশেষ পরামর্শক এফবিআইয়ের প্রাক্তন পরিচালক রবার্ট মুয়েলার চার্জ গঠন করেছেন। তবে চার্জে ঠিক কাদের নাম রয়েছে বা চার্জের বিষয়বস্তুতে কী আছে, সে বিষয়ে পরিষ্কার কিছু জানা যায়নি।

ট্রাম্প দাবি করেছেন, তার নির্বাচনী প্রচারশিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার যোগসাজশের অভিযোগ অসত্য ও মিথ্যা দোষারোপ ছাড়া কিছুই নয়। সম্ভাব্য গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশের পর বর্তমান পরিস্থিতে তিনি রিপাবলিকানদের সাহায্য চেয়েছেন। তিনি দাবি করেছেন, রিপাবলিকানরা তার পেছনে আছেন এবং তাদের প্রতি তিনি আহ্বান জানিয়েছেন, ‘এবার কিছু করুন।’

ট্রাম্প তার টুইটে দাবি করেছেন, ইউরোনিয়ান নিয়ে চুক্তির সময় তার স্বামী বিল ক্লিনটনের দাতব্য প্রতিষ্ঠানে রাশিয়া অর্থ দিয়েছিল, যখন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন হিলারি ক্লিনটন। তার মুছে ফেলা ৩৩ হাজার ই-মেইলে অনেক অপরাধের প্রমাণ ছিল। কিন্তু এসব বাদ দিয়ে ডেমোক্র্যাটরা ট্রাম্প/রাশিয়ার আঁতাতের ভুয়া খবরের পেছনে পড়ে আছে। শয়তানি রাজনীতির জন্য ডেমোক্র্যাটরা রিপাবলিকানদের বিরুদ্ধে ভুল অভিযোগ চাপিয়ে ভয়ংকর নির্যাতন করছে। কিন্তু রিপাবলিকানরা ঘুরে দাঁড়িয়েছে। ডেমোক্র্যাট ও ক্লিনটনের অসংখ্য ভুল আছে, যা বেরিয়ে আসছে। এর বিরুদ্ধে কিছু না-কিছু করতে রিপাবলিকানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ট্রাম্প।

ধারাবাহিক চারটি টুইটে হিলারি ও ডেমোক্র্যাটদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করার প্রায় ১ ঘণ্টা পর আরেক টুইটে ট্রাম্প বলেছেন, ‘কর হ্রাস ও সংস্কার নিয়ে রিপাবলিকানরা যখন ঐতিহাসিক মুহূর্তে রয়েছে, ঠিক তখনই রাশিয়া নিয়ে এসব আলোচনা হচ্ছে। এসব কি কাকতালীয়! না।’

তবে ট্রাম্পের টুইটের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে বহু সমালোচনা এসেছে। ট্রাম্প যেমন কর হ্রাসের দিক থেকে দৃষ্টি ঘোরানোর জন্য ডেমোক্র্যাটদের দায়ী করেছেন, তেমনি সমালোচকরাও রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাতের তদন্ত থেকে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে সরানোর চেষ্টা করার জন্য ট্রাম্পকে দায়ী করেছেন।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের সব গোয়েন্দা সংস্থা ঐকমত্যে পৌঁছায়, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পকে বিজয়ী করতে হস্তক্ষেপ করেছিল রাশিয়া। এ বিষয়ে তদন্তের মধ্যেই এফবিআইয়ের পরিচালক জেমস কোমিকে ট্রাম্প বহিষ্কার করেন। তারপর রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পশিবিরের আঁতাতের বিষয়টি তদন্ত করার ভার দেওয়া হয় এফবিআইয়ের প্রাক্তন পরিচালক রবার্ট মুয়েলারের ওপর। মুয়েলারের টিম হোয়াইট হাউসের বর্তমান ও প্রাক্তন বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার মুখোমুখি হয়েছেন। সম্প্রতি তিনি এ বিষয়ে একটি চার্জ গঠন করেছেন।

এ ছাড়া কংগ্রেশনাল ইনভেস্টিগেশন কমিটি এ ইস্যুতে তদন্ত করছে। সেখানেও কিছু অগ্রগতি আছে, যা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যাচ্ছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Be the first to comment on "রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাত করেছিলেন হিলারি : ট্রাম্প"

Leave a comment

Your email address will not be published.




two × four =