ট্রাম্প যুদ্ধে যেতে চাইছেন না : টিলারসন

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার ছোড়া প্রথম বোমা ভূপাতিত হওয়ার আগপর্যন্ত তাঁর দেশ কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাবে।
স্থানীয় সময় রবিবার সিএনএনের টক শো স্টেট অব দি ইউনিয়নে টিলারসন এ মন্তব্য করেন।
উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচির বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান জানতে চাইলে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিএনএনকে বলেন, ‘প্রথম বোমা পড়ার আগপর্যন্ত এসব কূটনৈতিক তৎপরতা চলবে।’
কোরীয় উপদ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্র রাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক মহড়া শুরুর একদিন আগে উত্তর কোরিয়ার বিষয়ে নিজ দেশের অবস্থান জানালেন টিলারসন।
উত্তর কোরিয়া সোমবারের মহড়াটিকে যুদ্ধের আগে পোশাকি মহড়া হিসেবে দেখছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, আত্মরক্ষার্থেই এই মহড়ার আয়োজন।
প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল গুয়ামে একগুচ্ছ ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার হুমকির পর উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের স্নায়ুযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংস করে দেওয়ার হুমকি দেন। অন্যদিকে, ট্রাম্পের বক্তব্যকে কুকুরের ঘেউ ঘেউয়ের সঙ্গে তুলনা করে সমুচিত জবাব দেওয়ার ঘোষণা দেয় উত্তর কোরিয়া।
কয়েক মাস ধরে দুই দেশের মধ্যকার এমন টানটান উত্তেজনার মধ্যেই সিএনএনের টক শোতে টিলারসন বলেন, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অভিলাষ বন্ধে তাঁদের অগ্রাধিকার কূটনীতি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কূটনীতি কাজ করবে না বললেও আদতে তিনি সংঘাত এড়িয়ে চলতে চান।
‘প্রেসিডেন্ট (ট্রাম্প) আমাকে পরিষ্কার করে দিয়েছেন যে তিনি এটা (উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে চলমান উত্তেজনা) কূটনৈতিকভাবে সমাধান করতে চান’, বলেন টিলারসন।
‘তিনি যুদ্ধে যেতে চাইছেন না’, যোগ করেন টিলারসন।

 

Be the first to comment on "ট্রাম্প যুদ্ধে যেতে চাইছেন না : টিলারসন"

Leave a comment

Your email address will not be published.




10 − four =