ঢাবি ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি, আটক ১০

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ১০ জনকে আটক করা হয়েছে ।

শুক্রবার সকাল ১০টা ‘ক’ ইউনিটের ভর্তিপরীক্ষা শুরু হয়। শেষ হয় বেলা সাড়ে ১১টায়।

এই পরীক্ষাতে জালিয়াতির অভিযোগে যে ১০ জনকে আটক করা হয়েছে তাদের ২ জনকে আটক করা হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজনেস ফ্যাকাল্টি থেকে, ৪ জনকে বোরহান উদ্দিন পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কলেজ কেন্দ্র থেকে, একজনকে লালমাটিয়া মহিলা কলেজ কেন্দ্র থেকে। এ ছাড়া বাকি তিনজনকে কোন কেন্দ্র থেকে আটক করা হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি।

ঢাবি বিজনেস ফ্যাকাল্টি থেকে আটক দুজন হলেন- নূর আলম ও আল ইমরান। ভ্রাম্যমান আদালত তাদের ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ৮৭টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজারীবাগের লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউটসহ ক্যাম্পাসের বাইরের কেন্দ্রগুলো হলো- নীলক্ষেত হাই স্কুল, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, ড. শহীদুল্লাহ কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ,অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ,গভর্নমেন্ট টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাই স্কুল, ঢাকা সিটি কলেজ, আইডিয়াল কলেজ, নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজ, লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, লালমাটিয়া উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, গভর্নমেন্ট সায়েন্স কলেজ, উইল্স লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজ, সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ, নটরডেম কলেজ, মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আইডিয়েল স্কুল এন্ড কলেজ, শেখ বোরহানুদ্দীন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ, ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ এবং আহমেদ বাওয়ানী একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজ।

এ বছর ১ হাজার ৭৬৫টি আসনের জন্য আবেদন করেন ৮৯ হাজার ৫০৬ জন ।

Be the first to comment on "ঢাবি ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি, আটক ১০"

Leave a comment

Your email address will not be published.




four × 3 =