রাষ্ট্রপতির কাছে ৩০ দিনের ছুটি চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : রাজউকের প্লট ও চার কোটি টাকার পে-অর্ডার বিতর্কের পর অবশেষে এক মাসের  ছুটি চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধন বাতিলের রায় নিয়েও সমালোচনার মুখোমুখি হন তিনি। এরপর তার পদত্যাগের দাবিও ওঠে আওয়ামী পন্থী আইনজীবীদের সংগঠনসহ বিভিন্ন মহলে।

এক মাসের অবকাশ শেষে সুপ্রীমকোর্ট খুলবে আগামীকাল মঙ্গলবার। খোলার পরই বিচারপতি সিনহাকে অপসারণের দাবিতে আন্দোলনের হুমকি রয়েছে আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীদের। তার আগেই ঐদিন থেকেই ছুটি চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে বিচারপতি সিনহার আবেদনের কথাটি প্রকাশ পেল।

প্রধান বিচারপতির ছুটির বিষয়টি সোমবার সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘আমি জেনেছি প্রধান বিচারপতি এক মাসের ছুটি চেয়েছেন। এখন বিধি অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমও বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রপতির কাছে এক মাসের ছুটি চেয়েছেন। এখন বিধি অনুযায়ী আইন মন্ত্রণালয় পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে বিষয়টি উপস্থাপন করবে।’

এদিকে সুপ্রীমকোর্ট সূত্র জানিয়েছে, অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে এক মাসের ছুটি চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি।

উচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে নিতে সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদের যে পরিবর্তন ষোড়শ সংশোধনীতে আনা হয়েছিল, তা ‘অবৈধ’ ঘোষণার রায় গত ১ আগস্ট প্রকাশ করেন সুপ্রিম কোর্ট।

ওই রায়ের পর্যবেক্ষণে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা দেশের রাজনীতি, সামরিক শাসন, নির্বাচন কমিশন, দুর্নীতি, সুশাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতাসহ বিভিন্ন বিষয়ের সমালোচনা করেন। এতে রায় প্রকাশের পর থেকেই প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়।

 

Be the first to comment on "রাষ্ট্রপতির কাছে ৩০ দিনের ছুটি চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি"

Leave a comment

Your email address will not be published.




12 − three =