প্রবীণদের যথাযথ মর্যাদা দেয়া নৈতিক দায়িত্ব : রাষ্ট্রপতি

Print Friendly, PDF & Email

নিউজ ডেস্ক : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, আর্থ-সামাজিক ও জনস্বাস্থ্যের উন্নয়নসহ চিকিৎসা বিজ্ঞানের উন্নতিতে বিশ্বে মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। তাই পৃথিবীর সব দেশেই প্রবীণদের সংখ্যা বাড়ছে। প্রবীণ জনগোষ্ঠী সমাজে সম্মান ও শ্রদ্ধার পাত্র। তাদের মেধা, মনন ও কর্মময় জীবনের পথ বেয়েই সভ্যতা ও উন্নয়ন এগিয়ে চলেছে। তাই প্রবীণদের যথাযথ মর্যাদা ও সম্মান প্রদানসহ তাদের স্বস্তিদায়ক জীবন, শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য নিশ্চিত করা সকলের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য।

‘আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস’ উপলক্ষে এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ১ অক্টোবর যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালিত হচ্ছে।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ‘আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস’ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হচ্ছে জেনে রাষ্ট্রপতি সন্তোষ প্রকাশ করেন। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি ও কল্যাণমূলক সংগঠনকে প্রবীণদের কল্যাণে গঠনমূলক ভূমিকা পালনেরও আহ্বান জানান তিনি।

আবদুল হামিদ বলেন, ব্যক্তি, সমাজ ও জাতীয় জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রবীণদের রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান। তাই প্রবীণদের মৌলিক ও মানবিক অধিকার নিশ্চিত করা জরুরি। পাশাপাশি তারা যাতে সুখ-শান্তিতে এবং মর্যাদার সঙ্গে বেঁচে থাকতে পারেন সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।

‘এ ক্ষেত্রে পরিবারের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার প্রবীণদের কল্যাণে বয়স্কভাতা, চিকিৎসাসেবা প্রদানসহ সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।

Be the first to comment on "প্রবীণদের যথাযথ মর্যাদা দেয়া নৈতিক দায়িত্ব : রাষ্ট্রপতি"

Leave a comment

Your email address will not be published.




4 × 1 =